আজ বৃহস্পতিবার ║ ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ বৃহস্পতিবার ║ ৩০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║১৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ২২শে জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ:

    পটিয়ায় কিশোর গ্যাং এর ছুরিকাঘাতে যুবক খুন

    Share on facebook
    Share on whatsapp
    Share on twitter

    পটিয়া উপজেলার আশিয়া ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায় ছুরিকাঘাতে এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহত রাকিবুল হাসান হৃদয় (২২) উপজেলার বরলিয়া ইউনিয়নের মেলঘর এলাকার মো: কবির হোসেনের পুত্র বলে জানাগেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) বিকেল ৫টায় আশিয়া বাংলাবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
    নিহতের মামা মো: মামুন জানান, আশিয়া বাংলা বাজার এলাকায় আমার ভাগ্নেকে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে চলে যায় আইয়ুবের ছেলে সৌরভ, শরীফ তোফায়েল ও ফয়সাল। তাদের সঙ্গে হৃদয় টাকা-পয়সার লেনদেন ছিল। সকালে শহর থেকে সেখানে গিয়ে ছিল হৃদয়। পরে উদ্ধার করে তাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে আসি।
    চমেক হাসপাতালের ইনচার্জ নুরুল আলম আশেক জানান, পটিয়া আশিয়া বাংলাবাজার এলাকায় হৃদয়কে কতিপয় দুস্কৃতিকারীরা দেশীয় অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন অংশে এলোপাতারি ছুরিকাঘাত করে রক্তাক্ত করে। সে আহত অবস্থায় ঘটনাস্থলে অজ্ঞান হয়ে পড়ে থাকলে খবর পেয়ে তার মামা মো: মামুন তাকে উদ্ধার করে সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে নিয়ে আসেন। চমেক হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে হৃদয়কে মৃত ঘোষনা করেন। লাশ বর্তমানে ইমার্জেন্সি লাশ ঘরে রাখা হয়েছে বলে তিনি জানান।
    পটিয়া থানার ওসি নেজাম উদ্দিন সত্যতা নিশ্চিত করলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বিস্তারিত কিছু জানাতে পারেনি।
    প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানাযায়, দীর্ঘদিন ধরে উপজেলার আশিয়া ইউনিয়নের মো: শরীফসহ কয়েকজনের সঙ্গে বড়লিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের হৃদয়ের বিরোধ চলে আসচ্ছিল। এ বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার বিকেলে আশিয়া বাংলা বাজার এলাকায় অতর্কিতভাবে উপর্যপুরি ছুরিকাঘাত করে। দিন দুপুরে ছুরিকাঘাত করলে ভয়ে কেউ এগিয়ে আসেনি। রক্তাক্ত অবস্থায় হৃদয় মাটিতে লুটে পরলে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। প্রায় সময় আশিয়া বাংলা বাজার এলাকায় কিশোর গ্যাংয়ের সদস্য অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মহড়া দেন। বিভিন্ন বিষয়ে তাদের দুই গ্রুপের মধ্যে দ্বন্ধ সৃষ্টি হয় পুর্ব শত্রুতার জের ধরে হৃদয়কে অর্তকিতভাবে ছুরিকাঘাত করা হয়

    Share on facebook
    Share on twitter
    Share on whatsapp
    Share on linkedin
    Share on telegram
    Share on skype
    Share on pinterest
    Share on email
    Share on print

    সর্বাধিক পঠিত

    আমাদের ফেসবুক

    আমাদের ইউটিউব