আজ শনিবার ║ ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

আজ শনিবার ║ ১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ║১লা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ║ ৯ই জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

সর্বশেষ:

    চবিতে লিফট’র জন্য চরম ভোগান্তি

    Share on facebook
    Share on whatsapp
    Share on twitter

    চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ( চবি) জীববিজ্ঞান অনুষদের শিক্ষক – শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে লিফটের অভাবে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূল ফটক থেকে জীববিজ্ঞান অনুষদ অনেক দূরে হওয়ার কারণে প্রতিদিনই দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে ক্লাস করতে যেতে হয় শিক্ষার্থীদের। এরপর পাঁচতলায় সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠতে হয় তাদের। এতে অনেক সময় ক্লান্ত ও অসুস্থ পর্যন্ত হয়ে পড়েন কোন কোন শিক্ষার্থী।

    বিশেষ করে ৪র্থ তলায় অবস্থিত প্রাণ রসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগ, জিন প্রকৌশল ও জৈবপ্রযুক্তি বিভাগ এবং ৫ম তলায় অবস্থিত মনোবিজ্ঞান বিভাগ, ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা বেশি ভোগান্তির শিকার হন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নজরে এই বিড়ম্বনার চিত্র তুলে ধরা হলে লিফটের জন্য অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়। এরপর কাজ শুরু হলেও নানা সমস্যা আর বাধার মুখে একবছর ধরে কাজ চলার পরও খুলে দেওয়া হয়নি লিফট।

    লিফট না থাকায় প্রতিনিয়তই শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা নানা সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন বলে জানান। মনোবিজ্ঞান বিভাগের ২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী সলিমা বিনতি রিপা বলেন, আমরা প্রতিদিন শহর থেকে ক্যাম্পাসে আসি এরপর ডিপার্টমেন্ট অনেক দূরে হওয়ায় কষ্ট করে আসতে হয়। এখানে এসে সিঁড়ি বেয়ে পাঁচতলায় উঠতে হয়। মাঝেমাঝে বিভিন্ন কাগজপত্র,শিট, নোট ফটোকপি করতে হয় আমাদের। এছাড়া নাস্তা বা দুপুরের খাবার খেতেও নিচে যেতে হয়। এসব কারনে বারবার নিচে আসা যাওয়া করায় আমরা ক্লান্ত হয়ে পড়ি। অনেকে অসুস্থও হয়ে পড়ে।

    মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. অরুনাভ বৈরাগী বলেন, জীব বিজ্ঞান অনুষদে লিফট না থাকায় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা প্রচুর ভোগান্তিতে রয়েছে। অনেক সময় শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রীরা অসুস্থ থাকলেও তাদের কষ্ট করে সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠতে হয়। বিশেষ করে দুপুরে খাওয়ার পর উপরে উঠতে অনেক বেশি কষ্ট হয়।

    তিনি আরও বলেন, সকল সমস্যা সমাধানের মাধ্যমে দ্রুত সময়ের মধ্যে জীববিজ্ঞান অনুষদের লিফট চালু করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাই।

    এবিষয়ে জীববিজ্ঞান অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো.তৌহিদ হোসেন সকালের সময়কে বলেন, লিফটের কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। এখানে বৈদ্যুতিক কিছু সমস্যার কারনে চালু করা যাচ্ছে না। প্রকৌশল দপ্তরে কথা বলেছি তারা সমস্যা চিহ্নিত করতে পেরেছে। এখানে ভোল্টেজ কম হওয়ায় চালু করা যাচ্ছে না। কিছু দিনের মাঝেই ভোল্টেজ বাড়িয়ে লিফট চালু করা হবে।

    প্রধান প্রকৌশলী( ভারপ্রাপ্ত) জাহাঙ্গীর ফজল বলেন, আমরা লিফটের কাজ শেষ করেছি, এখন অল্প কিছু কাজ বাকি আছে। আমার এখানে লোক স্বল্পতার কারণে শনিবারের আগে এটার কাজ করা যাবে না।

    Share on facebook
    Share on twitter
    Share on whatsapp
    Share on linkedin
    Share on telegram
    Share on skype
    Share on pinterest
    Share on email
    Share on print

    সর্বাধিক পঠিত

    আমাদের ফেসবুক

    আমাদের ইউটিউব